সংবিধানের ধারা ১ - ১২২

👉ভারতীয় সংবিধানের ধারা ১ থেকে ১২২    




         ধারা   :      যে সকল বিষয় অন্তর্ভুক্ত




 ♦ 1 ভারতের ইউনিয়ন ও ভূখণ্ডগত এলাকা ।

 ♦ 2 নতুন রাজ্যের সূচনা ও গঠন ।

 ♦ 3 রাজ্যের সীমানা পরিবর্তন বা ভূখন্ড গত এলাকার পরিবর্তন ও রাজ্যের নাম পরিবর্তন ।

 ♦ 4 নতুন রাজ্যের সূচনা , রাজ্যের সীমানা পরিবর্তন- ইত্যাদির জন্য সংবিধানের প্রথম ও চতুর্থ তপশীলের সংশোধন জনিত ব্যবস্থা ।

 ♦ 8  যে সমস্ত ভারতীয় বংশোদ্ভূত ব্যাক্তি ভারতের বাইরে বসবাস করছে তাদের বিশেষ নাগরিকত্বের অধিকার প্রদান ।

 ♦ 9 যে সমস্ত ব্যাক্তি বিদেশী কোনো রাষ্ট্রের নাগরিকতা গ্রহন করেছে তারা ভারতীয় নাগরিক হিসাবে গন্য হবেন না ।

 ♦ 10 নাগরিকদের অধিকার সংক্রান্ত বিষয় ।

 ♦ 12 রাষ্ট্রের সংজ্ঞা ও বর্ণনা ।

 ♦ 13 মৌলিক অধিকারগুলির সাথে সংগতিহীন আইন অথবা মৌলিক অধিকারগুলিকে খর্ব করে এমন আইন বাতিলযোগ্য ।

 ♦ 14 সাম্যের অধিকার ।

 ♦ 15 জাতি ধর্ম , বর্ণ , স্ত্রী , পুরুষ , জন্মস্থান ইত্যাদি নির্বিশেষে যেকোনো প্রকার বৈষম্যকে নিষিদ্ধকরণ ।

 ♦ 16 সরকারি চাকুরিতে পুরুষ ও মহিলাদের সমানাধিকার থাকবে ।

 ♦ 17  অস্পৃশ্যতা নিষিদ্ধকরণ ।

 ♦ 18 এই ধারার অধিনে ভারত সরকার 'ভারতরত্ন' ও 'পদ্মশ্রী' পুরষ্কার প্রদান করেন।

 ♦ 19 বাক স্বাধীনতা ও মত প্রকাশের অধিকার । ২। শান্তিপূর্ণ ভাবে ও নিরস্ত্র ভাবে সমবেত হওয়ার অধিকার । ৩। সমিতি বা সঙ্ঘ গঠনের অধিকার । ৪। ভারতের সর্বত্র স্বাধিন ভাবে চলার অধিকার। ৫। ভারতীয় ভূখণ্ডের যেকোনো অংশে স্বাধীনভাবে বসবাস করার অধিকার। ৬। যেকোনো বৃত্তি অবলম্বন করার অথবা যেকোনো উপজীবিকা , ব্যাবসা বানিজ্য করবার অধিকার ।

 ♦ 20 কোনো অপরাধের জন্য নাগরিককে বিধি বহির্ভূত ও অতিরিক্ত শাস্তি প্রদান করা যাবে না ।

 ♦ 21 জীবন ও ব্যাক্তিগত স্বাধীনতার সংরক্ষণ । কোনো ব্যাক্তিকে গ্রেফতার করা হলে তাকে যত শীঘ্র স ম্ভব গ্রেফতারের কারন জানাতে হবে এবং ২৪ ঘন্টার বেশী আটকে রাখা যাবেনা ।

 ♦ 21A প্রাথমিক শিক্ষাকে মৌলিক অধিকারের স্বীকৃতি প্রদান ।

 ♦ 22 গ্রেফতার ও আটক রাখার বিরুদ্ধে সংরক্ষণ মূলক ব্যবস্থা । কোনো ব্যাক্তিকে গ্রেফতার করা হলে অতি সত্ত্বর গ্রেফতারের কারন জানানো ।

 ♦ 23 বল প্রয়োগ দ্বারা পরিশ্রম করানো , বেগার খাটানো নিষিদ্ধকরন ।

 ♦ 24 ১৪ বছরের কম বয়স্ক শিশুদের কলকারখানা , খনী বা অন্য কোনো বিপদজনক কাজে নিযুক্ত করা যাবে না ।

 ♦ 25 সকল ব্যাক্তিই সমান ভাবে বিবেকের স্বাধীনতা অনুসারে ধর্ম স্বীকার , ধর্মাচরন এবং ধর্ম প্রচারের স্বাধীনতা ভোগ করবে ।

 ♦ 26 প্রত্যেক ধর্মীয় সম্প্রদায় নিজের ধর্মীয় সংগঠন ও কার্যাদি পরিচালনা করতে পারবে ।

 ♦ 27 ধর্মের কারনে কোনো ব্যাক্তিকে কর দিতে বাধ্য করা যাবে না ।

 ♦ 28 শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ধর্মীয় শিক্ষার ক্লাসে ছাত্র ছাত্রীদের অংশগ্রহনের বিষয়টি তাদের ইচ্ছাধীন ।



  • 34         কোনো অঞ্চলের সামরিক আইন বলবৎ থাকাকালীন সেই অঞ্চলে মৌলিক
                অধিকারের উপর বিধিনিষেধ আরপিত হতে পারে।
  • 35    মৌলিক অধিকারগুলি রক্ষার্থে প্রয়োজনীয় আইন প্রনয়ন।



   রাষ্ট্রের নির্দেশমূলক নীতিসমূহ   
(Directive Principles of State Policy)
    (ধারা 36-51A)
  • 36       রাষ্ট্রের সংজ্ঞা।
  • 39A         ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা ও দিন-দরিদ্রদের জন্য বিনা অর্থে আইনগত সাহায্যদান।
  • 40        পঞ্চায়েত ব্যবস্থার প্রতিষ্ঠা ও গ্রামীণ স্বায়ত্তশাসন প্রতিষ্ঠা।
  • 43     জীবনধারণের উপযুক্ত মজুরী প্রদান, জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন ও গ্রামের
               কুটির শিল্পের প্রসার ইত্যাদি।
  • 44    রাষ্ট্র সমগ্র ভারতে একই দেওয়ানী বিধি (Uniform Civil Code)  প্রবর্তনের
               চেষ্টা করবে।
  • 45      ছয় বছর বয়সের নীচের সিশুদের প্রতি যত্ন নিতে হবে এবং তাদের শিক্ষার
               জন্য বন্দ্যোবস্ত করতে হবে।
  • 46     তপশিলী জাতি, তপশিলী উপজাতি ও অন্যান্য পশ্চাদপদ শ্রেনিগোষ্ঠীর
               মানুষদের শিক্ষা ও অর্থনৈতিক স্বার্থ সংরক্ষন ও উন্নয়নের জন্য রাষ্ট্র সচেস্ট
               হবে।
  • 47    রাষ্ট্র নাগরিকদের স্বাস্থ্য ও জীবনযাত্রার মানের উন্নয়ন ঘটাবে ও পুষ্টিকর
               খাদ্যের মান উন্নয়ন করবে।
  • 48     কৃষিব্যবস্থা ও পশুপালন ব্যবস্থাকে রাষ্ট্র বিজ্ঞানসম্মত উপায়ে গড়ে তুলবে
               এবং গাভী অন্যান্য গৃহপালিত পশুর হত্যা নিষেধ করবে।
  • 48A        রাষ্ট্র পরিবেশ সংরক্ষণ ও উন্নয়ন ঘটাবে এবং বন ও বন্যপ্রনীর সংরক্ষণ
              করবে।
  • 49           রাষ্ট্র ঐতিহাসিক স্মৃতিসৌধগুলি ও অন্যান্য জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলির
              সংরক্ষণ করবে।
  • 50     রাষ্ট্র দেশের বিচারব্যবস্থাকে শাসন বিভাগ থেকে মুক্ত রাখবে।
  • 51      রাষ্ট্র আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তাকে সুনিশ্চিত করবে।
                  
  • 51A       মৌলিক কর্তব্যসমূহ বা দায়িত্ব।


                  ভারতের রাষ্ট্রপতি ও উপরাষ্ট্রপতি    
  • 52    ভারতের একজন রাষ্ট্রপতি থাকবেন।
  • 53   কেন্দ্রের শাসন সংক্রান্ত ক্ষামতা রাষ্ট্রপতির হাতে ন্যস্ত হবে।
  • 54  রাষ্ট্রপতির নির্বাচন পদ্ধতি।
  • 55  রাষ্ট্রপতির নির্বাচনের ধরন।
  • 56  রাষ্ট্রপতির শাসনকার্যের সময়কাল ও শর্ত। তিনি ৫ বছরের জন্য নির্বাচিত
             হবেন।
  • 57  রাষ্ট্রপতি পুনঃনির্বাচিত হতে পারেন।
  • 60   রাষ্ট্রপতির শপথগ্রহন।
  • 61  রাষ্ট্রপতির ইমপিচমেন্ট বা পদচ্যুতি সংক্রান্ত বিষয়।
  • 62  রাষ্ট্রপতির পদ শূন্য হলে উপরাষ্ট্রপতি তাঁর পদে আসীন হন। তবে দু’মাসের
             মধ্যে নতুন রাষ্ট্রপতির জন্য নির্বাচন করতে হয়।
  • 63  ভারতের একজন উপরাষ্ট্রপতি থাকবেন।
  • 64  ভারতের উপরাষ্ট্রপতি পদাধিকারবলে (Ex-Officio) রাজ্যসভার চেয়ারম্যান
            পদে আসীন হন।
  • 65  রাষ্ট্রপতির অবর্তমানে রাষ্ট্রপতি পদের দায়িত্বভার বহন করবেন উপরাষ্ট্রপতি
            এবং উপরাষ্ট্রপতি রাষ্ট্রপতি অনুপুস্থিত থাকালিন সময়ে রাষ্ট্রপতিপদে আসীন
            হবেন।
  • 66  উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচন পদ্ধতি।
  • 70  আকস্মিক পরিস্থিতিতে রাষ্ট্রপতির বিশেষ ক্ষামতা ভোগ ও দায়িত্ব পালন।
  • 72  রাষ্ট্রপতির ক্ষমাপ্রদর্শন করার ক্ষমতা।


   কেন্দ্রীয় মন্ত্রীপরিষদ ও অ্যাটর্নি- জেনারেল (ধারা 74-78)   
  • 74    রাষ্ট্রপতিকে সাহায্য ও পরামর্শ দেবার জন্য কেন্দ্রে একটি মন্ত্রীপরিষদ থাকবে।
  • 75   কেন্দ্রীয় মন্ত্রীসভার গঠন প্রনালী।
  • 76  ভারতে একজন অ্যাটর্নি- জেনারেল থাকবেন।
  • 77     কেন্দ্রীয় সরকারের কার্যপ্রণালী বা শাসনপ্রনালী।
  • 78     প্রধানমন্ত্রীর কর্তব্য রাষ্ট্রপতিকে সরকার বা মন্ত্রীপরিষদের সিদ্ধান্ত বিষয়ে
             অবহিত করা।


    ভারতীয় পার্লামেন্ট (ধারা 79-123)  
  • 79    পার্লামেন্টের গঠনতন্ত্র।
  • 80   রাজ্যসভার গঠনপ্রণালী।
  • 81  লোকসভার গঠনপ্রণালী।
  • 82  জনগণনার পর পার্লামেন্টের উভয় কক্ষের আসন সংখ্যার পরিবর্তন বা
             সংশোধন।
  • 84     পার্লামেন্টের সদস্য হবার যোগ্যতা।
  • 88   পার্লামেন্টের সদস্য না হয়েও পার্লামেন্টের অভ্যন্তরে অ্যাটর্নি- জেনারেল বক্তব্য
              রাখতে পারবেন।
  • 89  রাজ্যসভায় একজন চেয়ারম্যান ও একজন ডেপুটি চেয়ারম্যান থাকবেন।
  • 93  লোকসভায় একজন স্পীকার ও একজন ডেপুটি স্পীকার থাকবেন।
  • 97  লোকসভার স্পীকার ও ডেপুটি স্পীকার ও রাজ্যসভার চেয়ারম্যান ও
              ডেপুটি চেয়ারম্যানের বেতন ও ভাতা সংক্রান্ত বিষয়। এঁদের বেতন ও
              ভাতা দেওয়া হয় ভারতের সঞ্চিত ব্যয় তহবিল থেকে (Consolidated
                    Found of India)
  • 99  পার্লামেন্টের সদস্যদের শপথ গ্রহন।
  • 100  পার্লামেন্টের ভোটদান পদ্ধতি ও কোরাম(Quorum)  সংক্রান্ত বিষয়।
  • 101  পার্লামেন্টের আসন শূন্য হলে।
  • 106  পার্লামেন্টের সদস্যদের বেতন ও ভাতা সংক্রান্ত বিষয়াদি।
  • 107  বিল উত্থাপন ও পাস সংক্রান্ত বিষয়।
  • 108  বিশেষ ক্ষেত্রে পার্লামেন্টের যৌথ অধিবেশন আহ্বান।
  • 110  কেন্দ্রীয় অর্থবিলের সংজ্ঞা।
  • 112  সংসদের উভয় কক্ষে কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ করা হয়।
  • 115  পার্লামেন্টের অতিরিক্ত ও সহায়ক অর্থ মঞ্জুর।
  • 117  অর্থ বিষায়ক বা রাজস্ব বিল (Financial bill) সংক্রান্ত বিষয়।
  • 118  পার্লামেন্টের আইন পেশের পদ্ধতি।
  • 120  পার্লামেন্টে ব্যবহৃত ভাষা।
  • 122  পার্লামেন্টের কার্যাদিসমূহ আদালতের এক্তিয়ারভক্ত বিষয় নয়।



    
সংবিধানের ধারা ১ - ১২২ সংবিধানের ধারা ১ - ১২২ Reviewed by WisdomApps on August 06, 2018 Rating: 5

No comments:

Powered by Blogger.